1. news@www.banglaroitizzo.com : BanglarOitizzo :
  2. imrankhanbsl01@gmail.com : Imran Khan : Imran Khan
  3. banglaroitizzo.news@gmail.com : newseditor :
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৩৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
কালীগঞ্জ পৌর আ’লীগের বিশেষ বর্ধিতসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্বনাথে খেলাফত মজলিসের শূরা অধিবেশন সম্পন্ন করোনাকালে ১৭ সেপ্টেম্বর মহান শিক্ষা দিবস মাকে করোনা ভ্যাকসিন দিতে এসে মোটর বাইক চুড়ি শাজাহানপুরে ১০ টি বিট পুলিশিং কার্যালয় পরিদর্শন কালীগঞ্জ প্রেসক্লাব এর সাধারণ সম্পাদক আল-আমীন দেওয়ান এর মামীর ইন্তেকাল। বিএনপি’র নেতা খন্দকার মাহাবুবের রোগমুক্তিতে জাগপা’র দোয়া মাহফিল ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মজিবর রহমানের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন নাজমুল হক প্রধান (সাবেক এমপি) বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর সুস্থতা কামনা এনডিপি’র ইতিহাসের এক গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় ৬২’র শিক্ষা আন্দোলন!

আদিতমারী প্রকৌশলীর দপ্তরে ঘুষ ছাড়া ফাইল নড়ে না!

লালমনিরহাট প্রতিবেদক :
  • প্রকাশিত: বুধবার, ৭ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৬৪ বার পড়া হয়েছে

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলা প্রকৌশলীর দপ্তরে ঘুষ ছাড়া কোন ফাইল নড়ে না বলে ঠিকাদারদের অভিযোগ। এমনকি বিলের স্মারক নম্বর দিতেও গুনতে হয় ৫শত টাকা ঘুষ। ঘুষ দিয়ে বিল নেয়ার ফলে কাজের গুনগত মান নিয়েও রয়েছে নানান অভিযোগ। এ যেন মগের মুল্লুক। দেখেও দেখার কেউ নেই।

অভিযোগে জানা গেছে, গ্রামীন হাট-বাজার উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় প্রায় ২কোটি টাকা ব্যয়ে আদিতমারী উপজেলার সাপ্টিবাড়ি হাটের ৪তলার ভিতের উপর ২তলা নির্মাণ কাজের দরপত্র আহবান করে প্রকৌশল দপ্তর। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটির প্রতিনিধি হিসেবে কাজটি তদারকি করছেন আদিতমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল আলম।

প্রায় ২কোটি টাকা ব্যয়ে সেই নির্মাণ কাজটি প্রায় ৫০শতাংশ সম্পূর্ণ হলে তৃতীয় দফায় বিলের আবেদন করেন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। সেই বিলের কাগজপত্র নিয়ে আদিতমারী উপজেলা প্রকৌশলীর দপ্তরে যান আদিতমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল আলমের ভাতিজা আদিতমারী উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ হযরত আলী। এ সময় বিলের আবেদনে স্মারক নম্বর দেয়ার জন্য ফাইলটি অফিস সহকারী নুরজাহান বেগম জেবির কাছে পাঠানো হয়। তিনি টাকা ছাড়া স্মারক নম্বর দিবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন।

অবশেষে বাধ্য হয়ে প্রথমে ২শত টাকা প্রদান করে স্মারক নম্বর বসানোর অনুরোধ করেন। ঘুষ কম হওয়ায় টাকা ছুড়ে ফেলে দেন অফিস সহকারী নুরজাহান বেগম জেবি। শেষ পর্যন্ত ৫শত টাকা ঘুষ নিয়ে তবেই বিলে স্মারক নম্বর বসিয়ে ফাইলটি অগ্রগামি করেন অফিস সহকারী।

ঠিকাদারের প্রতিনিধি কৃষিবিদ হযরত আলী সাংবাদিকদের বলেন, স্মারক নম্বর বসাতে গেলে অফিস সহকারী জেবি মিষ্টি খাওয়ার আবদার করেন। তাই তাকে প্রথমে ২শত টাকা দিয়েছিলাম। কম হওয়ায় সেই টাকা আমার পায়ে ছুড়ে মারেন এবং আমাকে ভৎসনা করেন। অফিসারদের লাখ লাখ টাকা ঘুষ দেন আর আমাদের বেলায় ৫শ/হাজার টাকা বের হয় না। যান স্মারক নম্বর অফিসারের কাছে নেন বলে জেবি ফাইলটি ফেরৎ দেন। অবশেষে ৫শত টাকা ঘুষ নিয়ে তবেই স্মারক নম্বর বসিয়ে ফাইলটি অগ্রগামী করেন অফিস সহকারী নুরজাহান বেগম জেবি। এদের কাছে ঠিকাদাররা জিম্মী বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

ঘুষ গ্রহনকারী আদিতমারী উপজেলা প্রকৌশলীর অফিস সহকারী নুরজাহান বেগম জেবি সাংবাদিকদের বলেন, ঘুষ নয়, বিল তুলছেন তাই মিষ্টি খাওয়ার জন্য টাকা দিয়েছেন।

আদিতমারী উপজেলা প্রকৌশলী সোহেল রানা ঘুষ গ্রহণের ছবিটি তার অফিসের এবং অফিস সহকারী নুরজাহান বেগম জেবির বলে সনাক্ত করে সাংবাদিকদের বলেন, ফাইল ছুড়ে ফেলে টাকা আদায় করাটা দুঃখজনক। তাকে সতর্ক করা হবে।

লালমনিরহাট স্থানীয় প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফ আলী খান সাংবাদিকদের বলেন, প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হিসেবে জনগনের সেবা করার জন্যই সরকার বেতন দেন। এরপরও ফাইল আটকিয়ে মিষ্টি খাওয়ার জন্য টাকা নেয়া অন্যায়। বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

নিউজ ক্যাটাগরি

UDOY ADD
©দৈনিক বাংলার ঐতিহ্য (2019-2020)