1. news@www.banglaroitizzo.com : BanglarOitizzo :
  2. imrankhanbsl01@gmail.com : Imran Khan : Imran Khan
  3. banglaroitizzo.news@gmail.com : newseditor :
সোমবার, ১০ মে ২০২১, ০২:১০ পূর্বাহ্ন

খুলনায় করোনা সংক্রমণ রোধে ফ্রেন্ডস সিনিয়র জুনিয়র (F.S.J)যুব ক্লাবের উদ্যোগে বিভিন্ন সরঞ্জাম বিতরণ

রূপসা প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২১
  • ৬৭ বার পড়া হয়েছে
রুপসা

খুলনা জেলা রূপসা উপজেলার ৩নং নৈহাটি ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড শ্রীরামপুর এলাকার সুনামধন্য সামাজিক সংগঠন, ফ্রেন্ডস সিনিয়র জুনিয়র (F.S.J) যুব ক্লাব. উক্ত ক্লাবের এর উদ্যোগে সকল সময় সামাজিক” অরাজনৈতিক সাংগঠনিক” ধর্মীয় শিক্ষা ও সাংস্কৃতি সহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের সাথে সম্পৃত্য থাকে ফ্রেন্ডস্ সিনিয়র জুনিয়র.(F.S.J) যুব ক্লাবের নাম” এ দিকে খুলনা এবং সারাদেশ সহ বিশ্বের সকল স্হানে যখন মহামারি কোভিড-19 করোনা ভাইরাস সংক্রমণের হার অধিকতর সেই সময় আবারও রূপসা সহ দেশবাসীকে নোভেল করোনা সংক্রমণ থেকে সচেতন করার জন্য দিন ব্যাপি রূপসার শ্রীরামপুর ক্লাব মোড়, শ্রীরামপুর মসজিদ,নৈহাটি বাজার, রাস্তার বিভিন্ন পথচারী এবং দোকানদারদের মাঝে ৫০০ মাস্ক, ৩০০ জোড়া হ্যান্ড গ্লোবস ও ১০ লিটার হ্যান্ড-স্যানেটাইজার বিতরণ করা হয়েছে।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রূপসা যুব উন্নয়ন এর সহকারী কর্মকর্তা মোঃ নাহারুল ইসলাম এবং কে এম মফিজুর ইসলাম এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন ফ্রেন্ডস সিনিয়র জুনিয়র (F.S.J) যুব ক্লাব এর সম্মানীত সভাপতি এইচ এম জুবায়ের হোসেন, সহ-সভাপতি মোঃ নাজিম উদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ হাসান রশীদ, সহ-সাধারণ সম্পাদক শ্রী অখিল ভদ্র, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ জুবায়ের খান, ক্রীড়া সম্পাদক মোঃ আরাফাত মোড়ল, দপ্তর সম্পাদক মোঃ ফরহাদ মোড়ল, সহ-দপ্তর সম্পাদক মোঃ নুর হোসেন সাধ, সহ প্রচার সম্পাদক মোঃ রাতুল শেখ ও সদস্য মোঃ হাসান শেখ, মোঃ আরাফাত ইসলাম, মোঃ নাদিম শেখ, মোঃ শরিফুল ইসলাম (টিপু), মোঃ আমান গাজী, মোস্তাফিজুর রহমান, মোঃ অতুল শেখ, মোঃ জুম্মান শিকদার, মোঃ মেহরাজ শেখ সহ অন্যান্য সদস্য বৃন্দ ও বাংলাদেশ অনলাইন প্রেসক্লাবের সদস্য ” রূপসী রূপসার কৃতিত্ব সাংবাদিক শেখ শহীদুল্লাহ্ আল আজাদ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

নিউজ ক্যাটাগরি

©দৈনিক বাংলার ঐতিহ্য (2019-2020)