1. news@www.banglaroitizzo.com : BanglarOitizzo :
  2. imrankhanbsl01@gmail.com : Imran Khan : Imran Khan
  3. banglaroitizzo.news@gmail.com : newseditor :
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১১:২১ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
কালীগঞ্জ পৌর আ’লীগের বিশেষ বর্ধিতসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্বনাথে খেলাফত মজলিসের শূরা অধিবেশন সম্পন্ন করোনাকালে ১৭ সেপ্টেম্বর মহান শিক্ষা দিবস মাকে করোনা ভ্যাকসিন দিতে এসে মোটর বাইক চুড়ি শাজাহানপুরে ১০ টি বিট পুলিশিং কার্যালয় পরিদর্শন কালীগঞ্জ প্রেসক্লাব এর সাধারণ সম্পাদক আল-আমীন দেওয়ান এর মামীর ইন্তেকাল। বিএনপি’র নেতা খন্দকার মাহাবুবের রোগমুক্তিতে জাগপা’র দোয়া মাহফিল ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মজিবর রহমানের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন নাজমুল হক প্রধান (সাবেক এমপি) বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর সুস্থতা কামনা এনডিপি’র ইতিহাসের এক গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় ৬২’র শিক্ষা আন্দোলন!

ঝালকাঠিতে সুদের টাকা পরিশোধের চাপে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা

ঝালকাঠি প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ২ জুলাই, ২০২১
  • ১৮৭৮ বার পড়া হয়েছে
ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা
ছবি : সংগৃহীত

করোনা মহামারির সময়কালে সুদের টাকা পরিশোধের চাপে ঝালকাঠিতে তিন কন্যার জনক মো. কাওছার হোসেন রুবেল (৩৫) নামে এক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন। শুক্রবার (২জুলাই) দুপুরে তার জানাজা নামাজ শেষে নিজ বাড়ীতে দাফন করা হয়েছে।

বুধবার (৩০ জুন) বিকেলে বিষপানের পর বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৭টায় সে মৃত্যু বরন করে। শহরের কৃষ্ণকাঠি এলাকার মৃত আজিজ মাঝির ছেলে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী রুবেল মৃত্যুকালে এক স্ত্রী ও তিন শিশুকন্যা রেখে গেছেন তিনি। তার বড় মেয়ে এবার এসএসসি পাস করেছে বলে পারিবারিক সূত্রে জানাগেছে।

মৃত রুবেলের প্রতিবেশী ও স্থানীয়রা জানায়, দরিদ্র পরিবারের সদস্য কাওছার হোসেন রুবেলের জেলা পরিষদ ভবনের সামনে একটি চায়ের দোকান ছিল। মুলধনের অভাবে সে কয়েকটি বেসরকারি সংস্থা (এনজিও) ও সুদের ব্যবসায়ীর কাছ থেকে প্রায় লক্ষাধিক টাকা ঋণ নিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিল।

চা-বিস্কিটসহ বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রীর দোকান পরিচালনা করলেও আশানুরুপ ব্যবসা না হওয়ায় সংসার চালিয়ে নিয়মিত কিস্তি দিতে ব্যর্থ হওয়ায় তাদের কালে অপমান-অপদস্থ হলো। সর্শেষ ৫০ হাজার টাকা পরিশোধ করতে না পেরে সে দিশেহারা হয়ে পরে ও দোকান বন্ধ রেখে পালিয়ে থাকতে বাধ্য হওয়ায় চরম হতাশ হয়ে পরে।

তারা আরও জানান, নিজের প্রতি আস্থা হারিয়ে বিষন্নতায় কবলিত হয়ে কয়েকদিন আগে ঘরে বসে সে একসাথে প্রায় ২০/২৫টি ঘুমের ওষুধ সেবন করে অচেতন হয়ে পড়লে স্ত্রী-সন্তানরা স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। দু’দিন চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে বাড়িতে আসলে বুধবার বিকেলে আবারও বিষপান করলে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে নেয়ার পর বৃহস্পতিবার রাতে মারা যান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

নিউজ ক্যাটাগরি

UDOY ADD
©দৈনিক বাংলার ঐতিহ্য (2019-2020)