1. news@www.banglaroitizzo.com : BanglarOitizzo :
  2. imrankhanbsl01@gmail.com : Imran Khan : Imran Khan
  3. banglaroitizzo.news@gmail.com : newseditor :
বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩৮ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
কালীগঞ্জ পৌর আ’লীগের বিশেষ বর্ধিতসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্বনাথে খেলাফত মজলিসের শূরা অধিবেশন সম্পন্ন করোনাকালে ১৭ সেপ্টেম্বর মহান শিক্ষা দিবস মাকে করোনা ভ্যাকসিন দিতে এসে মোটর বাইক চুড়ি শাজাহানপুরে ১০ টি বিট পুলিশিং কার্যালয় পরিদর্শন কালীগঞ্জ প্রেসক্লাব এর সাধারণ সম্পাদক আল-আমীন দেওয়ান এর মামীর ইন্তেকাল। বিএনপি’র নেতা খন্দকার মাহাবুবের রোগমুক্তিতে জাগপা’র দোয়া মাহফিল ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মজিবর রহমানের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন নাজমুল হক প্রধান (সাবেক এমপি) বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর সুস্থতা কামনা এনডিপি’র ইতিহাসের এক গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় ৬২’র শিক্ষা আন্দোলন!

বরিশালে যমুনা টিভির ক্যামেরা পার্সন লাঞ্ছিত, ক্যামেরা ছিনতাই

নিজেস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত: বুধবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৫৯৯ বার পড়া হয়েছে

বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল যমুনা টিভির ক্যামেরাপারসন (সাংবাদিক) কে লাঞ্ছিত এবং ক্যামেরা ও বুম আটকে রাখার অভিযোগ উঠেছে। হাসপাতালের করোনা ইউনিটে জনবল সংকটে ভোগান্তির চিত্র ধারণ করতে গিয়ে লাঞ্ছিত হন যমুনা টেলিভিশনের বরিশাল ব্যুরোর ক্যামেরাপারসন আনিসুর রহমান।

এ সময় তার সঙ্গে থাকা ক্যামেরা ও যমুনা টিভির বুমও ছিনিয়ে নেয়া হয়। খবর শুনে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে এটিএন বাংলার ক্যামেরাপারসন আলাউদ্দিন এবং মোহনা টিভির ক্যামেরাপারসন মো. সুজনকে ধাওয়া করে সেখানকার কর্মচারীরা।

আজ (মঙ্গলবার) দুপুর ২টার দিকে করোনা ইউনিটের তৃতীয়তলায় এ ঘটনা ঘটে।

যমুনা টিভির ক্যামেরাপারসন আনিসুর রহমান বলেন, করোনা ইউনিটে রোগীদের নানা ভোগান্তিসহ চিকিৎসক নার্সদের যে সমস্যা হচ্ছে সেই সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদন তৈরির জন্য যমুনা টিভির বরিশাল ব্যুরোপ্রধান কাওছার হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে করোনা ইউনিটে যাই দুপুরে। নিচতলা এবং দ্বিতীয়তলার ভিডিও করা শেষে তৃতীয়তলায় কাজ করার সময় সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক এএইচএম আতাউল্লাহ ভিডিও করতে বারন করলে ভিডিও ধারণ অফ রাখা হয়। তারপরও তিনি আমাকে লাঞ্ছিত করেন এবং একপর্যায়ে বুম ও ক্যামেরা রেখে দেন।

এটিএন বাংলার ক্যামেরাপারসন আলাউদ্দিন ও মোহনা টেলিভিশনের ক্যামেরাপারসন সুজন বলেন, আনিসুর রহমানকে লাঞ্ছিত করার খবর শুনে আমরা ঘটনাস্থলে গেলে ওই চিকিৎসক স্টাফদের নিয়ে করোনা ইউনিটের নিচে এসে আমাদেরসহ আরও কয়েকজন সহকর্মীকে ধাওয়া করে মারধরের জন্য। ওই ডাক্তার মানসিক বিকারগ্রস্ত। তার হাতে রোগীও তো নিরাপদ নয়।

যমুনা টিভির বরিশাল ব্যুরোপ্রধান কাওছার হোসেন বলেন, করোনা ইউনিটে মূলত আমরা শুধু রোগীদের নয়, চিকিৎসক এবং নার্সদের যে ভোগান্তি হচ্ছে সেই সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদন করতে গিয়েছিলাম। কিন্তু হঠাৎ করেই ওই চিকিৎসক ক্যামেরা ছিনিয়ে নেন। ক্যামেরা ও বুম ফেরৎ পেয়েছি তবে ক্যামেরার সাথে থাকা মেমোরি কার্ডটি খোয়া গেছে। হাসপাতালের পরিচালক আশ্বাস দিয়েছেন সেটি ফিরিয়ে দেয়ার।

হাসপাতালের পরিচালক সাইফুল ইসলাম জানান, ভুল বোঝাবুঝি থেকে ঘটনাটি ঘটেছে। আমরা এ ব্যাপারে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

নিউজ ক্যাটাগরি

UDOY ADD
©দৈনিক বাংলার ঐতিহ্য (2019-2020)