1. news@www.banglaroitizzo.com : BanglarOitizzo :
  2. imrankhanbsl01@gmail.com : Imran Khan : Imran Khan
  3. banglaroitizzo.news@gmail.com : newseditor :
বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০১:৩২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
কালীগঞ্জ পৌর আ’লীগের বিশেষ বর্ধিতসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্বনাথে খেলাফত মজলিসের শূরা অধিবেশন সম্পন্ন করোনাকালে ১৭ সেপ্টেম্বর মহান শিক্ষা দিবস মাকে করোনা ভ্যাকসিন দিতে এসে মোটর বাইক চুড়ি শাজাহানপুরে ১০ টি বিট পুলিশিং কার্যালয় পরিদর্শন কালীগঞ্জ প্রেসক্লাব এর সাধারণ সম্পাদক আল-আমীন দেওয়ান এর মামীর ইন্তেকাল। বিএনপি’র নেতা খন্দকার মাহাবুবের রোগমুক্তিতে জাগপা’র দোয়া মাহফিল ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মজিবর রহমানের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন নাজমুল হক প্রধান (সাবেক এমপি) বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর সুস্থতা কামনা এনডিপি’র ইতিহাসের এক গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় ৬২’র শিক্ষা আন্দোলন!

হাজার হাজার নারীকে যৌন পেশায় ঠেলে দিচ্ছে মহামারি করোনা!

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত: শনিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২১
  • ৮৫ বার পড়া হয়েছে

করোনাভাইরাস মহামারিতে ক্ষতিগ্রস্তের তালিকায় শীর্ষ দেশগুলোর অন্যতম হলো মেক্সিকো। দেশটিতে করোনার কারণে অন্য অনেক পেশার মতো যৌনকর্মীরাও চরম বেকায়দায় পড়েছে।

পরিস্থিতি এতোটাই বিপজ্জনক যে, আগে যে সকল যৌনকর্মীরা হোটেল কিংবা বিভিন্ন ভবনে বিশেষ সম্পর্কের জন্য যেতেন, তারা এখন গাড়ি কিংবা রাস্তার পাশের আড়ালে খদ্দেরের সংস্পর্শে যাচ্ছেন।

ক্লদিয়া নামে এক যৌনকর্মী জানান, প্রায় ১০ বছর আগে এক ব্যক্তির সঙ্গে আমার বিয়ে হয়। এরপর থেকে খদ্দেরের আশায় রাস্তায় নামিনি। কিন্তু করোনা মহামারিতে আমার স্বামীর চাকরি চলে যাওয়ার পর বাসাভাড়া নিয়েও ভাবনায় পড়তে হয়েছে।

তিনি বলেন, এ পরিস্থিতিতে আমার সামনে কেবল রাস্তায় নেমে আসা ছাড়া উপায় ছিল না। থাকা আর খাওয়ার জন্য এটাই আমাদের একমাত্র পথ ছিল।

তিনি আরো বলেন, সেটাও কিন্তু আমার কাছে সহজ ছিল না। কারণ, গত ১০ বছর ধরে আমি এই লাইনে ছিলাম না। পুরনো খদ্দেরদের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ নেই।

লরা নামে আরেক নারী জানান, আগে বেছে বেছে খদ্দেরের সংস্পর্শে গেলেও এখন সেই সুযোগ তেমন একটা থাকছে না। খদ্দের হোটেলে নিয়ে যেতে না রাজি হলে রাস্তার পাশেই বিশেষ সম্পর্কে জড়াতে হচ্ছে।

তিনি আরো জানান, আমার খদ্দেরদের বেশিরভাগই চাকরি হারিয়ে ফেলেছে।  সে কারণে তারা আমাকে অর্থ দিতে পারছে না। এখন অল্প কয়েকজন খদ্দের রয়েছে। পরিস্থিতি এতোটা ভয়াবহ যে, একদিনের খাবার থাকছে তো পরের দিনের জন্য কিছুই থাকছে না।

লরা জানান, এ পেশায় নতুন বহু মুখ দেখা যাচ্ছে। মহামারির কবলে পড়ে তারা রাস্তায় এসে নেমেছে বলে মনে করেন তিনি।

যৌনকর্মীদের নিয়ে কাজ করেন এলভিরা মাদ্রিদ। তিনি বলেন, মেক্সিকো সিটির রাস্তায় ১৫ হাজার দুই শতাধিক যৌনকর্মী কাজ করেন। করোনা মহামারি শুরু হওয়ার আগের তুলনায় এই সংখ্যা দ্বিগুণ।

তিনি আরো বলেন, গলিগুলোতে বহু নারীকে দেখা যাচ্ছে। যারা আগে এসব জায়গায় ছিলেন না। এটা সত্যিই বিস্ময়কর।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

নিউজ ক্যাটাগরি

UDOY ADD
©দৈনিক বাংলার ঐতিহ্য (2019-2020)